তর্কের যে নিয়ম প্রশ্নহীনভাবেই গ্রাহ্য তার বাইরের তর্ক

বৃহন্নলার বিরুদ্ধে ভারতপন্থীদের অভিযোগ হালকা, বায়বীয় ও দুর্বল

বৃহন্নলায় ঋতুপর্ণের গানের বাংলা অনুবাদ গাওয়া হইছে। এইটা নিয়া এত চুরি চামারির অভিযোগ কোত্থেকে আসে! ব্রজভাষায় গাওয়া গান বাংলা কইরা গাইলে কী কারণে অনুমতি নিতে হবে শুনি!

ভিন ভাষার জিনিস অনুবাদ কইরা আমরা ছাপছি না? রবীন্দ্রনাথ করছেন না এই কাম ? বঙ্কিম করছেন না? নিজের নামেই তো করছেন।

কলকাতার অগ্রগণ্য বড়ভাইরা এই রাস্তা দেখাইয়া গেছেন। আমরা কোলকাতার নববাবুদের ফোঁপানিতে তা বন্ধ করব না গো।

আর সৈয়দ মুস্তাফা সিরাজের কাহিনী অনুকরণে সিনেমা বানানোও খুব ঠিক আছে। নাম না নিলেও ঠিক আছে।

আগে শক্ত আইন করেন, তারপের আইনের রাস্তায় কথা বলেন। আপনাদের একচেটিয়া ব্যবসা মাইর খাইতেছে বুঝি?

একপাক্ষিক বাণিজ্য বন্ধ করার পরেই দুই দেশের স্বত্ব সম্পর্কিত আইন হইতে পারে। নচেৎ কেবলই নৈতিক ধামকি চলবে না।

আর শিল্পে অনুকরণ অবশ্যই চলবে।

২১/৩/২০১৬

Leave a Reply