Category গণমাধ্যম

‘ডুব’ যে কারণে অনেক বেশি জনপ্রিয়তা পাইতে পারে অথবা ফারুকী কোথায়

একগামিতার পক্ষে সেক্যুলার রক্ষণশীলদেরকে আরো বেশি নৈতিক শক্তি দান করবে ফারুকীর ‘ডুব’।

ড. সামিয়া খাতুনের পিএইচডি, ইতিহাসের বিলম্ব ও অস্ট্রেলিয়ার গহীন মরুতে পথ হারানো বিবিসি বাংলা

বিবিসি আধাখেচড়া ও অতিশায়িত প্রতিবেদন যে করে তা আবারও বোঝা গেল এই প্রতিবেদন দেইখা।

সেক্যুলার নাগরিকদের দুঃখের কারণ

এই হাসি-নাটকগুলি অন্যের প্রতি ব্যঙ্গ ও বিদ্রূপে উদ্বুদ্ধ করে মানুষকে।

ওগো পায়রা!

পাবলিক ফোরাম মানে সকলের সঙ্গে মিশবার দাসখৎ নয়।

নাঈমুল ইসলাম খানের ওকালতি অথবা সাংবাদিকতা

খুন হইয়া যাওয়ার চাইতে সম্ভাব্য অন্যায় কমেন্ট করা দরকারি হইতে পারে।

নাগরিকদের অসম্মান করাটা মিডিয়ার কাম না!

কারও অপরাধের শাস্তি তাকে অসম্মান করা নয়… অপরাধী প্রমাণিত হইলেও কাউকে অসম্মান করা যাবে না…

“যেইখানে যেই সুযোগ পাই কাজে লাগাই। যেইখানে নাই লাগাই না।….”

আমি সামহোয়ার ছাড়িও নাই। পোস্ট করব না, তবে মন্তব্য করব এই হইল আমার অবস্থান, আগেই বলছি। – ২০০৯

সলিমুল্লাহ খানকে কেন অদৃশ্য করে দিতে চায় প্রথম আলো

বুদ্ধিজীবী উৎপাদক প্রথম আলো তার সমালোচক বুদ্ধিজীবীদের অদৃশ্য করে দিতে পারলে বাঁচে।

বিপাশার অতিথিরা, ৫০ হাজার থিকা সাবধান!

বলা যায় দানের সংবাদ রাষ্ট্র কইরা বিপাশা ও বিপাশার অতিথি অনুষ্ঠানটি দুই শিল্পীর ভবিষ্যৎ–তা থাক বা না থাক–ঝরঝরা কইরা দিলেন।

ব্লগার সাবধান!

পত্রিকার যা কাজ ব্লগের তা না। যে দায়িত্ব ব্লগের নাই, সে দায়িত্বশীলতারও তার দরকার নাই। তথ্য মন্ত্রণালয় বরং বিচার কইরা দেখতে পারে পত্রিকা আইনের মইধ্যে ব্লগ পুষতে দেওয়ার সুযোগ আছে কিনা।

« Older posts

© 2020 কুতর্কের দোকান — Powered by WordPress

Theme by Anders NorenUp ↑