Category আইন

রাষ্ট্রের ধর্মনিরপেক্ষতা

রাষ্ট্র জন্মগত ভাবেই ধর্মবিরোধী প্রকল্প। নাইলে ধর্ম থাকতে রাষ্ট্রের উদ্ভব হয় কীভাবে!

অসাধারণদের বিচার কি আর সাধারণদের মত কইরা হবে নাকি!

বিচারের সামনে “আমিও আর সবার সমান” মানে অবিচাররে মাইনা নেওয়া।

অপরাধীর দৃষ্টিতে আইন

সুতরাং অপরাধের বিচারের মধ্য দিয়া অপরাধীর প্রতি বলপ্রয়োগই ঘটনা। এই বলপ্রয়োগকে বৈধ ধইরা নেওয়ার ইতিহাসই সভ্যতার বা আইন ও শাসনের ইতিহাস। আমি এর উল্টাটা ঘটাইতে হবে এমন আবদার করতেছি না। জাস্ট বলপ্রয়োগের চরিত্র নিয়া বা অপরাধীর প্রতি বলপ্রয়োগ যে ঘটে সেইটা বলতেছি। তা যতই পবিত্র বা বৈধ হউক না কেন।

দাঁড়ানোয় অসম্মান ও বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক

সুতরাং সম্মানিত লোকদের আদালতে ডেকে নিয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড় করানোতে নো প্রবলেম।

রাষ্ট্রপতির ক্ষমা

আদালত আইনগত ভাবে ও দেশের মানুষ নৈতিক ভাবে যারে ক্ষমা করতে রাজি না রাষ্ট্রপতি তারে ক্ষমা করতে পারেন। এইখানেই রাষ্ট্রপতির ক্ষমার পরমতা।

বিশিষ্ট নাগরিকদের বুঝতে পারা!

হামিদা হোসেন, শামসুল বারী, সুলতানা কামাল, খুশী কবির, ইফতেখারুজ্জামান, মেঘনা গুহঠাকুরতা ও সারা হোসেন। ওনাগো এই বিশিষ্ট উদ্বেগ দেইখা মনে হয় এই প্রথম পুলিশ কাউরে নির্যাতন করল।

ভিকটিমের পোশাকের বর্ণনা দিয়া প্রথম আলো কী ভুল করলো?

পোশাকের ব্যাপারে জনমানসে প্রচলিত ধারণার তল্পি বহনকারী একটিভিস্টদের যে কোনো মূল্যে শাস্তি দেওয়ার যে একটিভিজম তার অবসান দরকার।

ইনস্ট্যান্ট শাস্তি, পত্রিকা ও পাবলিকের আমোদ (২০১০)

যে কোনো দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি বোঝায় যে আইনের লোকেরা তাদের কর্তব্য না কইরা বরং দৃষ্টান্ত স্থাপনেই বেশি আগ্রহী।

প্রাণদুর্ভিক্ষ

দেশের একটি জাতীয় দৈনিক প্রথম আলোর ম্যাগসাইসাই পুরস্কারপ্রাপ্ত সম্পাদক মতিউর রহমান দেখলাম ফাঁসির পক্ষে আবাহন করছেন। তিনি ‘ন্যায়বিচারের জয়’ নামের খবরে লিখছেন, “আমরা চাই সব ঘাতকের ফাঁসি কার্যকর হোক।”

প্যাটেন্ট: আমাদের বুদ্ধিবৃত্তিক কাজের মার্কিনতা

প্যাটেন্ট করণ নিপাত যাক। পাইরেসি জিন্দাবাদ! এক কেন্দ্রিক বিশ্বব্যবস্থায় মনপ্রাণ নিবেদিত বুদ্ধিজীবীরা নিজ নিজ আস্তিকতা বিষয়ে সচেতন হয়ে উঠুন।

© 2020 কুতর্কের দোকান — Powered by WordPress

Theme by Anders NorenUp ↑